ক্যাম্পাস

হানিপ্রীতকে না পেয়ে যা করলেন রামরহিম

নিজ ডেরার দুই সাধ্বীর সম্ভ্রম নষ্ট করার অভিযোগে ২০ বছরের দণ্ডভোগ করছেন উত্তর ভারতের হরিয়ানার স্বঘোষিত ধর্মগুরু গুরমিত রাম রহিম সিং।

গত ২৫ আগস্ট তাকে আদালত দোষি সাব্যস্ত করার পর থেকেই একের পর এক তার খবর মিডিয়ায় উঠে এসেছে। এবারও দীপাবলি উৎসব পালন নিয়ে একটি নতুন তথ্য উঠে এসেছে।

এক ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সূত্র অনুযায়ী খবর,, প্রতি বছর ধূমদাম করে দীপাবলি পালন করত রাম রহিম। দীপাবলিতে সারা ডেরা প্রদীপ দিয়ে সাজাতে খুবই পছন্দ করত স্বঘোষিত এই বাবা। কিন্তু এইবার দীপাবলিতে কী করল সে?

দীপাবলি উপলক্ষে কয়েদিদের জন্য বিশেষ অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়েছিল। কয়েদিদের মিষ্টি খাওয়ানোর এবং যাতে কয়েদিরাও প্রদীপ বা মোমবাতি জ্বালাতে পারে, সেই ব্যবস্থাও জেলে করা হয়েছিল।

তবে রাম রহিম সেই অনুষ্ঠানে কোনো ভাবেই অংশ নেয়নি। না সে মিষ্টি খেয়েছে, না মোমবাতি বা প্রদীপ জ্বালিয়েছে। কারণ তিনি চেয়েছিলেন দিপাবলিতে যেন তার সাথে হানিপ্রীতকে দেখা করার সুযোগ করে দেয় জেল কর্তৃপক্ষ।

কিন্তু জেল কর্তৃপক্ষ তার সেই আবেদনে সাড়া দেয়নি। আর হানিপ্রীতকে না পাওয়ায় এবারের দিপাবলি রাম রহিমের জীবনে আলো নিয়ে আসেননি। তাই এই উৎসবকে এবার পালন করেননি তিনি।

জানা গিয়েছে, দীপাবলির সময়ে সমস্ত রকমের আয়োজনের মূল ভার দেয়া হতো হানিপ্রীতকে। রাম রহিমের গুফার বাইরে ডেরার মেয়েদের প্রদীপের থালা হাতে দাঁড় করিয়ে দেয়া হতো। তার মাঝেই জাঁকজমক ভাবে সেজে বেরোত ভণ্ডবাবা।

২০১৬ সালে রাম রহিম নিজের ডেরায় প্রায় দেড় লক্ষ প্রদীপ জ্বালিয়েছিল। অথচ এইবার দীপাবলির আলোর রোশনাই থেকে শতহস্ত দূরে নিজেকে রাখলো রাম রহিম।

নিউজ ডেস্ক

মন্তব্য লিখুন

Follow us

Don't be shy, get in touch. We love meeting interesting people and making new friends.